রোজা থেকে কি সিনেমা দেখা যাবে ?

292 জন দেখেছেন
07 জুন 2016 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন মো:শাহনুর রহমান (1,026 পয়েন্ট)

4 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
07 জুন 2016 উত্তর প্রদান করেছেন Yakub ali (20,258 পয়েন্ট)

সিনেমা দেখা যাবে, তবে যেহেতু সিনেমা

তাই না দেখাই উত্তম, এতে রোজা মাকরুহ

হবে, সিনেমার অশ্লিল দৃশ্য গান ইত্যাদি

হারাম।


ইয়াকুব আলী নিঃস্বার্থভাবে মানুষের কল্যাণে কাজ করার দৃঢ় ইচ্ছা বাস্তবায়িত করার পাথেয় হিসেবে বেছে নিয়েছেন বিস্ময়কে। চিকিৎসাবিদ্যায় নিজের অর্জিত জ্ঞান কাজে লাগিয়ে সমাধান করে চলেছেন মানুষের নানাবিধ সমস্যার। সাধারণ মানুষের শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় সিক্ত হয়ে আজীবন বিষ্ময়ে থেকে মানুষের উপকার করার সংকল্প নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন তিনি। বিস্ময় ডট কমের সাথে আছেন সমন্বয়ক হিসেবে।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
07 জুন 2016 উত্তর প্রদান করেছেন আরাফাতA (20 পয়েন্ট)
সাওম  শব্দের অর্থ বিরত থাকা। যাবতীয় গুনাহের কাজ থেকে বিরত থাকাই হচ্ছে সাওমের  উদ্দেশ্য। তাই  রোজা থেকে সিনেমা দেখা যাবে না।  
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
07 জুন 2016 উত্তর প্রদান করেছেন সেজাদ (8,284 পয়েন্ট)
দৃষ্টিকে সব ধরনের গোনাহ থেকে যেমন- বেগানা মেয়েদের দেখা থেকে হেফাজত করা। তা সরাসরি দেখা হোক বা টিভি-সিনেমায় দেখা হোক বা ম্যাগাজিন ও পত্রিকার ছবি হোক। অনেকে রোজা রেখে অবসর সময় নাটক-সিনেমা দেখে কাটায়। এতে তাদের রোজার নষ্ট হয়ে যায়। নাটক, সিনেমা দেখা , গল্পের বই পড়া জায়েজ হবে কিনা তা নির্ভর করছে এগুলোর বিষয় বস্তুর উপর । এগুলোতে যদি এমন কিছু থাকে যা বাস্তব ও ইসলামের নীতিমালার সাথে সাংঘর্ষিক তবে তা দেখা বা পড়া হারাম । প্রথম আসবে পর্দা বা হিজাবের নীতিমালা । যদি তা ভঙ্গ হয় তবে দেখা হারাম । তারপর, যদি গান- বাজনা বা music থাকে তবে তা হারাম । যদি এমন কিছু থাকে যেমন নারী-পুরুষের বিবাহ বহির্ভূত কর্মকাণ্ড , বউ- শাশুড়ি-ননদের পারিবারিক ঝামেলা যেখানে একে অন্যের পিছে কুমন্ত্রণা লাগাচ্ছে, পরকিয়া দেখাচ্ছে ( হিন্দি সিরিয়াল গুলো ) তবে তা দেখা যাবে না । বৈজ্ঞানিক কল্প কাহিনীর নামে এমন অনেক কিছু দেখানো বা লেখা হয় যা আল্লাহর অস্তিত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলে, এমন কিছূ দেখায় যা কেবল আল্লাহর পক্ষেই সম্ভব, ভ্রান্ততত্ত্ব যা কুরআন ও হাদিসের বর্নণার বিরুদ্ধাচারণ করে । এসব হারাম হবে । অনেকগুলোতে জাদুবিদ্যার ব্যবহার দেখায় (হ্যারি পটার) যা সম্পূর্ণ কুফরি । এগুলোও হারাম । কিছু মুভিতে শিখায় অপরাধ করার ষোলকলা । যা ফিতনা সৃষ্টির জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ হিসেবে কাজ করে । সবচেয়ে বড় কথা এগুলো মানুষের মাথার মধ্যে ঘুরতে থাকে অনেক ক্ষেত্রে তার বিশ্বাসকে নাড়িয়ে দেয় । এবং সময়ের অপচয় ঘটায়। অনেকে বলবে আমরা কেবল বিনোদনের জন্য এগুলো দেখি বা পড়ি এবং সময় কাটানোর মাধ্যম । কিন্তু এমন বিনোদনের অনুমতি নেই যেটা হারাম এবং একজন ঈমানদারের জন্য সময় অত্যন্ত মূল্যবান জিনিস । # আবু হুরাইরা (রা) বলেন , রাসূল্লাহ ( সা) বলেছেন , একজন ব্যক্তির ইসলামের পরিপূর্ণতার একটি লক্ষণ হল যে, তার জন্য জরুরী নয় এমন কাজ সে ত্যাগ করে । ( জামে তিরমিজী ২২৩৯)
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
07 জুন 2016 উত্তর প্রদান করেছেন আরিফ হোসাইন (78 পয়েন্ট)
হ্যা দেখা যাবে।তবে সিনেমাটি হতে হবে অশ্লীল মুক্ত।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

5 টি উত্তর
28 জুলাই 2016 "সাধারণ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন farhan ali (-4 পয়েন্ট)
2 টি উত্তর

168,020 টি প্রশ্ন

218,816 টি উত্তর

45,156 টি মন্তব্য

71,363 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...