ফোন এ চাজ্ টিকে না। কি করব?

68 জন দেখেছেন
10 জানুয়ারি "অ্যান্ড্রয়েড" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন atik hasan ah (9 পয়েন্ট)

2 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
10 জানুয়ারি উত্তর প্রদান করেছেন Manik 415 (6,038 পয়েন্ট)

স্টার্ট  ফোনে চার্জ ধরে রাখার কিছু নিয়ম ঃ 

** পর্দার ঔজ্জ্বল্য কমিয়ে রাখা- (Brightless)

স্মার্টফোনের পর্দার ব্রাইটনেস বা ঔজ্জ্বল্য

কমিয়ে রাখা ভালো। ফোনের সেটিংস

থেকে এটি পরিবর্তন করা যায়, আবার

কোনো কোনো মোবাইলে ব্রাইটনেস

পরিবর্তনের জন্য শর্টকাট কি-ও থাকে।

কিছুদিন ব্যবহার করলেই কম আলোর পর্দার

সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া যায়। পাশাপাশি

কিছুক্ষণ ব্যবহার না করা হলে

স্বয়ংক্রিয়ভাবে পর্দার আলো বন্ধ রাখার

সুবিধাটিও চালু রাখা উচিত।

**প্রয়োজন ছাড়া সব বেতার সংযোগ বন্ধ-

(WiFi,Bluetooth)

জিপিআরএস/এজ, জিপিএস, ওয়াই-ফাই,

ব্লুটুথের মতো বেতার সংযোগগুলো

প্রয়োজনের সময় ছাড়া বন্ধ রাখা উচিত।

কারণ, এই সংযোগগুলো চালু থাকলে সেগুলো

নিকটবর্তী সংযোগ উৎসটি খুঁজে বের করার

চেষ্টা করতে থাকে। আর এই সময়ে যে

পরিমাণ ব্যাটারি খরচ হয়, তা সেবা

ব্যবহারের সময়ের চেয়েও বেশি।

**পুশ নোটিফিকেশন বন্ধ রাখা-

(Sync Notification)

ই-মেইল, ফেসবুক, গুগল প্লাস, টুইটারসহ আরও

বিভিন্ন ধরনের অ্যাপলিকেশনে ‘পুশ

নোটিফিকেশন’ নামের একটি সুবিধা থাকে।

যেটি চালু থাকলে মোবাইল ফোনটি একটি

নির্দিষ্ট সময় পর পর সার্ভার থেকে নতুন তথ্য

সংগ্রহ করে। ফলে প্রয়োজন না থাকলেও

নির্দিষ্ট সময় পর পর ফোনটি নিজের মতো

করে কাজ করবে, আর চার্জ খরচ হবে।

**অপ্রজনীয় অ্যাপস গুলো আনিস্টল করে দিন

উপরের নিয়মগুলো অনুসরন করলো মোবাইলের

চার্জ দির্ঘস্হায়ি করা সম্ভব।

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
10 জানুয়ারি উত্তর প্রদান করেছেন মো:শাহনুর রহমান (1,023 পয়েন্ট)

চার্জ সাশ্রয়েরব্যাটারির জন্য বিভিন্ন রকমের অ্যাপ্লিকেশনও রয়েছে। তবে এর বাইরেও স্মার্টফোন ব্যবহারের কিছু নিয়ম আছে, যেগুলো মেনে চললে কিছুটা সাশ্রয় করতে পারবেন ব্যাটারির চার্জ। এসব পরামর্শ দেওয়া হয়েছে ভারতীয় দৈনিক টাইমস অব ইন্ডিয়ার অনলাইন সংস্করণে।
১. ডিসপ্লের ঔজ্জ্বল্য কমিয়ে ফেলুন
এটা হয়তো অনেকেই জানেন এবং প্রয়োগ করে থাকেন। যাঁরা এখনো এই কাজটা করেন না, তাঁরা ডিসপ্লের ঔজ্জ্বল্য বা ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখা শুরু করুন। এ পদ্ধতি ল্যাপটপ, ট্যাবের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য।
২. কালো ওয়ালপেপার ব্যবহার করুন
অ্যামোলেড স্ক্রিনের ফোনে কালো বা এ ধরনের রঙের ওয়ালপেপার ব্যবহার করলে চার্জ কম খরচ হয়। কারণ, অ্যামোলেড স্ক্রিনের আলো খরচ হয় বিভিন্ন রঙের পেছনে। তাই যত রঙিন ওয়ালপেপার দেওয়া হবে, আলোর খরচ বাড়বে, সে সঙ্গে চার্জও খরচ হবে।
৩. লো-পাওয়ার মোড
আপনার ফোনে যদি অ্যানড্রয়েড ৫ দশমিক শূন্য বা এর পরের ভার্সনের অপারেটিং সিস্টেম থাকে, তাহলে আপনার কপাল ভালো। কারণ, ফোনের চার্জ ১৫ শতাংশের কম হলেই এসব অপারেটিং সিস্টেমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে লো- পাওয়ার মোড চালু হয়ে যায়। অ্যানড্রয়েড অপারেটিংয়ের মার্শম্যালো ভার্সনে রয়েছে ‘ডোজ’ নামে একটি নতুন ফিচার। স্মার্টফোনের চার্জ কমে গেলে এই ফিচার ফোনটিকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে হাইবারনেশন মোডে নিয়ে যায় আর অনেকক্ষণ ধরে অব্যবহৃত অবস্থায় থাকা অ্যাপগুলো বন্ধ করে দেয়।
৪. লক স্ক্রিন নোটিফিকেশন চালু করুন
স্মার্টফোনের চার্জ বাঁচানোর আরেকটি ভালো বুদ্ধি হচ্ছে লক স্ক্রিন নোটিফিকেশন চালু করে রাখা। এতে বারবার আপনাকে লক খুলে নোটিফিকিশেন দেখতে হবে না। ফলে চার্জ কম খরচ হবে।
৫. ব্যবহারের পর অ্যাপস বন্ধ করুন
ঠিকমতো বন্ধ না করার কারণে অনেক সময় বিভিন্ন অ্যাপস চালু থাকে, যেটা অনেকে খেয়াল করেন না। বিশেষ করে জিপিএস ও ওয়াই-ফাইয়ের ক্ষেত্রে এ ব্যাপারটা বেশি ঘটে। আর এ দুটি অ্যাপস চালু থাকলে দ্রুত চার্জ ফুরিয়ে যায়। তাই কাজ শেষ হওয়ার পর অ্যাপস বন্ধ করুন।
৬. অ্যাপস ডাউনলোড ও আপডেট
অ্যাপস ডাউনলোড ও আপডেটের ক্ষেত্রে ওয়াই-ফাই সংযোগ ব্যবহার করুন। মোবাইলের ডাটা ব্যবহার করলে চার্জ বেশি খরচ হবে, এ ছাড়া সময়ও যাবে বেশি। সে ক্ষেত্রে দ্রুতগতির ওয়াই- ফাই সংযোগ ব্যবহার করলে তাড়াতাড়ি অ্যাপসগুলো ডাউনলোড ও আপডেট হয়ে যাবে। মোবাইলের চার্জও কম খরচ হবে।
৭. এয়ারপ্লেন মোড চালু করুন
স্মার্টফোনটি এয়ারপ্লেন মোডে থাকলে সব ধরনের ওয়ারলেস ফিচার বন্ধ হয়ে যায়। এতে ফোনের চার্জ কম খরচ হয়।
৮. আসল ব্যাটারি ব্যবহার করুন
স্মার্টফোনের ব্যাটারি নষ্ট হয়ে গেলে আসল ব্যাটারি ব্যবহারের চেষ্টা করুন। এতে আপনার ফোন ভালো থাকবে এবং চার্জও থাকবে অনেকক্ষণ।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

4 টি উত্তর
06 মার্চ 2016 "অ্যান্ড্রয়েড" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন md nafiz (7 পয়েন্ট)
1 উত্তর

168,249 টি প্রশ্ন

219,014 টি উত্তর

45,231 টি মন্তব্য

71,504 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...